নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর পাশাপাশি আসন উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে : শেখ হাসিনা

পোস্ট এর সময় : ৭:৫৪ অপরাহ্ণ , ভিজিটর : ৪

নিজস্ব প্রতিবেদক:-আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর পাশাপাশি বিভিন্ন আসন উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে। যে যে যার যার ইচ্ছামতো ভোট দেবে, কেউ বাধা দিতে পারবে না। কোথাও কেউ কোনো সংঘাত ঘটাতে পারবে না। আমি সংঘাত চাই না।
আজ বুধবার বিকেলে রাজশাহীসহ কয়েকটি জেলার সঙ্গে ভার্চুয়ালি জনসভায় প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘দলীয় প্রার্থী আছে। বিভিন্ন জায়গা উন্মুক্ত করে দিয়েছি। যার যার ভোট সে তার ইচ্ছামতো দেবে।
সেই পরিবেশটাও আমাদের রক্ষা করতে হবে। সহনশীল আচরণ দেখাতে হবে। মনে রাখতে হবে এই নির্বাচনটা বাংলাদেশের জন্য একান্তভাবে জরুরী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এই বাংলাদেশ নিয়ে তো অনেকে খেলতে চায়।
যারা স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে না, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাস করে না, জয় বাংলা স্লোগান যারা নিষিদ্ধ করে দেয়, বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ যারা নিষিদ্ধ করে দেয়, তারা দেশটাকে ধ্বংস করবে। তারা যেন এ দেশের মানুষের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলতে না পারে সেটাই আমাদের লক্ষ্য। তাই নির্বাচন করতে হবে শান্তিপূর্ণভাবে। যার যার ইচ্ছামতো ভোট দেবে। এখানে কেউ কাউকে বাধা দিতে পারবে না।
নির্বাচনে সংঘাত চান না জানিয়ে আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, ‘কোনো রকম সংঘাত আমি চাই না। আমি চাই সত্যিকার অর্থে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভোট হবে। এই নির্বাচনের মধ্য দিয়ে জনগণ যে যার ইচ্ছামতো ভোট দেবে। সেটাই আমাদের লক্ষ্য। তাহলে বাংলাদেশের উন্নয়ন-অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকবে।’

পুঠিয়া উপজেলার বানেশ্বর সরকারি কলেজ মাঠে রাজশাহীর এই নির্বাচনী জনসভার আয়োজন করা হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এ এইচ এম খয়রুজ্জামান লিটন। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও রাজশাহী-৫ আসনের নৌকার প্রার্থী আবদুল ওয়াদুদ দারা। এ সময় রাজশাহীর অন্য ৫টি আসনের নৌকার প্রার্থীসহ দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। রাজশাহী জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ এই নির্বাচনী জনসভার আয়োজন করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *