কসবায় অবুঝ শিশু ধর্ষণ থানায় মামলা, অভিযুক্ত গ্রেপ্তার

পোস্ট এর সময় : ১০:৫৯ অপরাহ্ণ , ভিজিটর : ১৮

মোঃ আব্দুল বাকের সরকার বাবর, কসবা,(ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় চকলেট দেওয়ার কথা বলে ডেকে নিয়ে সাড়ে ৩ বছরের এক শিশুকে জোরপূর্বক ধর্ষনের অভিযোগে আজ বুধবার দুপুরে সোহাগ মিয়া (১৪) নামের একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তাকে আজ দুপুরেই ব্রাহ্মণবাড়িয়া জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্যাট আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

অপরদিকে ধর্ষনের শিকার হওয়া ওই শিশুটিকে ডাক্তারী পরীক্ষা করানোর জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছে পুলিশ। গ্রেপ্তার হওয়া সোহাগ মিয়া কসবা উপজেলার মেহারী ইউনিয়নের ঈশাননগর গ্রামের মোসলেম মিয়ার ছেলে।
মামলার এজহার সুত্রে জানা গেছে, গত সোমবার (০১ মে) বিকালে সাড়ে তিন বছরের একটি শিশু তাদের বাড়ির পাশে খেলা করছিল। সোহাগ মিয়া শিশুটিকে পাশের দোকান থেকে চকলেট কিনে দেওয়ার কথা বলে ডেকে নেয়। পরে তাদের বাড়িরএকটি কক্ষে নিয়ে যায়। সেখানে দরজা বন্ধ করে শিশুটিকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।
এ সময় শিশুটি চিৎকার করতে থাকে।শিশুটির চিৎকার শুনে বাড়ি ও আশে-পাশের লোকজন দৌড়ে এসে শিশুটিকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে। এ সময় সোহাগ মিয়া দৌড়ে পালিয়ে যায়।
পরে শিশুটিকে স্থানীয় ভাবে চিকিৎসা করে। এঘটনায় শিশুটির বাবা বাদী হয়ে আজ বুধবার সকালে সোহাগ মিয়াকে আসামী করে কসবা থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে। আজ দুপুরে মেহারী এলাকা থেকে পুলিশ সোহাগ মিয়াকে গ্রেপ্তার করেছে।
কসবা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহিউদ্দিন আমাদের অধিকার নিউজকে বলেন, শিশুটিকে চকলেটের কথা বলে ডেকে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষনের অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। অভিযুক্ত সোহাগ মিয়াকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শিশুটির ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *